ময়মনসিংহ, ১৬ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ । ২রা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

জিয়াউর রহমানের খেতাব বাতিল সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ সমাবেশে পুলিশের লাঠিপেটা

প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০২১

বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের রাষ্ট্রীয় খেতাব ‘বীর উত্তম’ বাতিলে সরকারের উদ্যোগের প্রতিবাদে আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে হট্টগোল বেঁধেছে। পরিস্থিতি সামলাতে দলটির নেতাকর্মীদের ওপর লাঠিচার্জ করে পুলিশ।

এসময় বিএনপি নেতাকর্মীরাও পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করেন। এতে অনেক নেতাকর্মী আহত হয়েছেন বলে খবর পাওয়া গেছে।

শনিবার দুপুর সোয়া ১২টার দিকে রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বক্তব্য দিচ্ছিলেন।

পুলিশের লাঠিপেটা শুরু হলে ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, আমানুল্লাহ আমান ও হাবিবুন্নবী খান সোহেলকে নেতাকর্মীরা প্রেসক্লাবের ভেতরে নিয়ে যান।

অনেক নেতাকর্মী দৌড়ে অন্যত্র সরে যান। তবে এ সময় তাদের স্লোগান দিতে দেখা গেছে।

বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান বলেন, শান্তিপূর্ণ সমাবেশের শেষ পর্যায়ে পুলিশ লাঠিচার্জ শুরু করে। এতে বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের অনেক নেতাকর্মী আহত হয়েছেন।

তিনি বলেন, নেতাকর্মীদের রক্ষা করতে গিয়ে পুলিশের লাঠিপেটায় আহত হয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র প্রার্থী বিএনপির আন্তর্জাতিকবিষয়ক কমিটির অন্যতম সদস্য প্রকৌশলী ইশরাক হোসেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সকাল থেকেই প্রেসক্লাবের সামনে বিএনপি নেতাকর্মীরা জড়ো হতে শুরু করেন। পরে দুপুরের দিকে সমাবেশ শুরু হয়। সমাবেশের শেষদিকে হঠাৎ বিএনপি নেতাকর্মীরা হট্টগোল শুরু করলে পুলিশ তাদের ওপর লাঠিচার্জ করে।

ছত্রভঙ্গ হয়ে বিএনপি নেতাকর্মীরা প্রেসক্লাবের ভেতরে ঢুকে পড়ার চেষ্টা করেন। পরে তারা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করেন। ১৫/২০ মিনিট ধরে সংঘর্ষ চলার পর সেখান থেকে সরে যায় বিএনপি নেতাকর্মীরা।

ছবি – সংগৃহীত

এই বিভাগের সর্বশেষ